নির্বাচনের কারণে ২০১৯ সালের আইপিএল অনুষ্ঠিত হবে বাংলাদেশে?

নির্বাচনের কারণে ২০১৯ সালের আইপিএল অনুষ্ঠিত হবে বাংলাদেশে?

ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক ক্রিকেট টুর্নামেন্ট এর মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় ভারতের ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল)। এটি এতটাই জনপ্রিয় যে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের টুর্নামেন্টের রাজা বলা হয় আইপিএলকে। তবে ২০১৯ সালের বিশ্বের এই সবচেয়ে জনপ্রিয় টুর্নামেন্ট হতে পারে বাংলাদেশে।এমন একটি প্রতিবেদন তৈরি করেছে ভারতীয় জনপ্রিয় ক্রিকেট গনমাধ্যম ক্রিকট্র্যাকার।

আগামী বছর নির্বাচনের কারণে ভারতে অনুষ্ঠিত নাও হতে পারে আইপিএল। এর আগে ও নির্বাচনের কারণে আইপিএল অনুষ্ঠিত হয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকায়। তবে সময় এবং জনপ্রিয়তার দিক থেকে বিশ্বের অন্যতম সেরা একটি ক্রিকেট ভেন্যু বাংলাদেশ। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের প্রথম পছন্দ সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং দক্ষিণ আফ্রিকা।

তবে ভারত ক্রিকেট বোর্ড চাচ্ছে তাদের দেশের সাথে সময় মিলিয়ে এশিয়ার কোন দেশ এই আইপিএল আয়োজন করতে। সে ক্ষেত্রে জনপ্রিয়তার দিক দিয়ে সংযুক্ত আরব আমিরাত এর পরেই রয়েছে বাংলাদেশের স্থান। বোর্ড অফ কন্ট্রোল ফর ইন ইন্ডিয়া (বিসিসিআই) আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেননি।

তবে ক্রিকেট ট্রেকার এর মতে জনপ্রিয়তা সময় এবং নিরাপত্তা দিক দিয়ে বাংলাদেশককে এগিয়ে রাখছে তারা। কারণ ভারতের থেকে বাংলাদেশের সময় দূরত্ব মাত্র ৩০ মিনিটের। আর দর্শকদের কথা মাথায় চিন্তা রেখে সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে বাংলাদেশকে এগিয়ে রাখবে ভারত। সূত্র : ক্রিকট্র্যাকার

সেঞ্চুরি করলেন মাহমুদউল্লাহ, দিলেন সেজদাহ

লিটন-মাহমুদউল্লাহর জুটিতে লাঞ্চ বিরতিতে যাওয়ার আগে বাংলাদেশের সংগ্রহ দাড়ায় ৬ উইকেট হারিয়ে ৩৮৭ রান। দুজনেই তুলে নেন ব্যক্তিগত ফিফটি।

বিরতির পর নেমেই ভূল শটে নিজের উইকেট বিলিয়ে দেন লিটন দাস। আউট হওয়ার আগে ৫৪ রান এসেছে তার ব্যাট থেকে। লিটনের পর ১৮ রান করে ফিরে যান মিরাজও।

এ দুজন ফিরে গেলেও এক প্রান্ত আগলে রেখে ব্যাট করছেন মাহমুদউল্লাহ। দূর্দান্ত এক সেঞ্চুরিও তুলে নিলেন তিনি। সেঞ্চুরির পর সেজদায় লুটিয়ে পড়েন মাহমুদউল্লাহ।

এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ ৮ উইকেট হারিয়ে ৪৫৮ রান। মাহমুদউল্লাহ ১০৩ ও তাইজুল ২২ রান করে ব্যাট করছেন।

২য় দিনের প্রথম ওভারে কেমার রোচকে একটি, পরের ওভারে রস্টোন চেজকে একটি, দিনের চতুর্থ ওভারে পরপর তিন বলে তিনটি চার মারেন সাকিব। দিনের শুরুর ৪ ওভারেই ২৭ রান পেয়ে যায় বাংলাদেশ। যার মধ্যে ২৩ রানই করেন সাকিব। চার ওভারের মধ্যেই পৌঁছে যান ৭৮ রানে।

সে তুলনায় দিনের শুরুতে বেশ নড়বড়ে ছিলেন অপর অপরাজিত ব্যাটসম্যান মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। কয়েকবার লেগ বিফোরের জোরালো আবেদন ও একবার স্লিপে ক্যাচ দিয়েও বেঁচে যান তিনি। অবশেষে দিনের পঞ্চম ওভারে বাউন্ডারি হাঁকিয়ে নিজের উপস্থিতি জানান দেন মাহমুদউল্লাহ।

তার এই বাউন্ডারিতেই পূরণ হয় দুজনের শতরানের জুটি। ৬৮তম ওভারে দলীয় ১৯০ রানের মাথায় মুশফিকুর রহিমের বিদায়ের পর দুজন মিলে জুটি বাঁধেন। ১৬৬ বল খেলেই নিজেদের জুটিতে শতরান করে ফেলেন সাকিব ও রিয়াদ।

দিনের সপ্তম ওভারে সাকিব ফিরে গেলেও এক প্রান্ত ধরে খেলছেন রিয়াদ। সাকিবের চেয়ে তুলনামূলক ধীর খেললেও ৮৮ বলে ৪ চারের মারে দিনের এগারতম ওভারে নিজের ফিফটি তুলে নিয়েছেন তিনি। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে তিনি খেলেছিলেন ১০১ রানের অপরাজিত ইনিংস।

সে ফর্ম বজায় রাখলেন চলতি টেস্টেও। মাহমুদউল্লাহর ব্যাটের নির্ভরতাতেই মূলত বড় সংগ্রহের আশা বাঁচিয়ে রেখেছে বাংলাদেশ। রিয়াদের সাথে তালে তাল মিলিয়ে চলছেন লিটনও। মাত্র ৫০ বলেই তুলে নিয়েছেন নিজের ফিফটি।

দফায় দফায় সংঘর্ষে তাবলীগ-জামাতের মুসল্লিরা, আহত দুই শতাধিক

টঙ্গীতে বিশ্ব ইজতেমা ময়দানে মাওলানা সা’দ কান্ধলভী ও মাওলানা জুবায়েরপন্থী তাবলীগ-জামাতের মুসল্লিদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। রাজধানীর অদূরে গাজীপুরের এ ঘটনা ঘটে। শনিবার (১ ডিসেম্বর) ভোর সাড়ে ৫টা থেকে এই সংঘর্ষ শুরু হয়। টঙ্গী পূর্ব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমদাদুল হক একথা জানিয়েছেন।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মুসল্লি, পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, শনিবার ভোর রাত থেকেই বিশ্ব ইজতেমা মাঠে মাওলানা জুবায়ের সমর্থিত তাবলীগ-জামাতের মুসল্লিরা অবস্থান করছিলেন। ফজরের নামাজের আগে থেকে সা’দপন্থী মুসল্লিরা লাঠি, ছাতা ও ব্যাগ নিয়ে ইজতেমা মাঠের অন্যদিক দিয়ে প্রবেশ করতে শুরু করে। ফজরের নামাজের পর থেকে সা’দপন্থী মুসল্লিরা জুবায়েরপন্থী মুসল্লিদের ইজতেমা মাঠ থেকে বের করে দেওয়ার চেষ্টা করে। এ নিয়ে দুইপক্ষের মধ্যে বাকবিতণ্ডা ও কয়েক দফা সংঘর্ষ হয়েছে। এ ঘটনায় কমপক্ষে ২০ জনেরও বেশি মুসল্লি আহত হয়েছেন। তাদেরকে টঙ্গী আহসানুল্লাহ মাস্টার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মুসল্লিরাটঙ্গী পূর্ব থানার ওসি এমদাদুল হক জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের জন্য পুলিশ চেষ্টা করছে। র‌্যাব সদস্যরাও ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে।