ঘরে ঘরে গিয়ে বিনা বেতনে কুরআন শেখানোই তার কাজ

বিশ্বনবী (দ.) ঘোষণা করেছিলেন, তোমাদের মধ্যে সর্বোত্তম ব্যক্তি সে, যে কুরআন শেখে এবং অন্যকে শেখায়। (বুখারি, হাদিস : ৫০২৭)। আরেকটি হাদিসে তিনি (দ.) বলেন, যে ব্যক্তি দ্বীনকে জীবিকার মাধ্যম করে খায়, দ্বীনের মধ্যে তার ততটাই অংশ আছে, যতটুকু সে খেয়েছে। (বিহারুল আনওয়ার, খণ্ড-৭৮, পৃষ্ঠা-৬৩)। তাই বাড়ি বাড়ি গিয়ে বিনা পারিশ্রমিকে মানুষকে কুরআন শিক্ষা দিচ্ছেন তুরস্কের এক বৃদ্ধ লোক।

লোকটি তার ব্যাগের ওপর কুরআন শিক্ষা কার্যক্রমের একটি ঘোষণাপত্র লিখে তুরস্কের রাস্তায় চলাফেরা করেন। তাতে তার মোবাইল নম্বর ও লেখা রয়েছে। তিনি তার ব্যাগের ওপর একটি বার্তা লিখে রাখেন, প্রতিদিন ১০ মিনিট ব্যয় করলে আমি আপনাকে কুরআন শিক্ষা দিতে পারি। আপনি আমাকে যেখানে আসতে বলবেন, আমি সেখানে আসতে পারি, হতে পারে সেটা আপনার বাড়ি কিংবা অফিস। কুরআন শেখানোর জন্য আমি কোনও পারিশ্রমিক নিই না। আমি এটা শুধুমাত্র আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য করে থাকি।

তুরস্কের এ বৃদ্ধ লোকের কাধে ঝুলানো ব্যাগ ও তার আহ্বানের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যায়। ছবি দেখে যাতে লোকটিকে চিনতে পারে এবং ঘোষণাপত্রে লেখা রয়েছে মোবাইল নম্বর; যার মাধ্যমে মানুষ তার সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারে।

বৃদ্ধার ভাষায়, কোনও ব্যক্তি যদি কুরআন শিখতে চায়, সে তার বাড়ি কিংবা অফিসে গিয়েও কুরআন শেখাতে রাজি আছেন। কুরআন শেখানোর বিনিময়ে তিনি কোনও পারিশ্রমিক গ্রহণ করবেন না। যদি কেউ প্রতিদিন ১০ মিনিট করে সময় বের করে তাকে আহ্বান করেন, সে তাদের আহ্বানে সাড়া দেবে।

যদিও লোকটির নাম ও ঠিকানা জানা যায়নি, কিন্তু তার লক্ষ্য এবং উদ্দেশ্য মহৎ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *