মেয়েটি এই শাড়ি পড়ে রাস্তায় বের হইল, কিন্তু ছবিটি জুম করে যা দেখা গেল জানলে চমকে যাবেন!!

ভারতীয় সংস্কৃতিতে শাড়ি এমন একটা জিনিস যা বাঙালি মহিলাদের একটা পছন্দের পোশাক ।আর এই পোশাকের কাছে অন্য পোশাক কে খুব নগন্য লাগে । এই শাড়ি পরলেc সকলকে দেখতে খুব সুন্দরী লাগে ।আর এই শাড়ি তাদের সুন্দরতা একটি অন্য মাত্রায় জায়গা করে দেয় ।আপনারা সকলএই দেখেছেন মহিলারা সব ফ্যাশনের জায়গায় শাড়ি পরে থাকে ।আর সেটা দক্ষিনে তামিল হোক বা বা পশ্চিমে গুজরাত বেনারসী শাড়ি বা বাংলার ধুতি ।আর এটি পারম্পরিক পোশাক ও বলা হয়ে থাকে ।আর এটি পরলে সুন্দরতার মাত্রা একটি অন্য রকম জায়গায় নিয়ে যায় ।

মেয়েটি এই শাড়ি পড়ে রাস্তায় বেরল কিন্তু ছবিটি জুম করে যা দেখা গেল জানলে চমকে যাবেনআর এই শাড়ির ইতিহাস আসলে খুব কম জন মানুষ জানেন আর আজ আমরা আপনাদের সেই ইতিহাস নিয়ে কিছু বলব ,শাড়ির ব্যাবহার বেদে পাওয়া গেছে । যদুবেদে শাড়ির শব্দের প্রথম উল্লেখ আছে ।শাড়ি সব থেকে পুরান আর অনেক দিন ধরে চলে আসা একটি পোশাক ।আর এই শাড়ির কথা মহাভারতে পাওয়া যায় আর এই শাড়িকে আত্মরক্ষার প্রতীক হিসাবে মনে করা হয়েছে ।

আর সকলেই জানি যখন দ্রোপদীর উপর দুর্যোধন খারাপ ব্যাবহার করেছিল তখন ভগবান শ্রী কৃষ্ণ তার শাড়ির আকার বাড়িয়ে তার সম্মান রক্ষা করেছিল ।আর এই শাড়ির অনেক ভাগ আছে যারা বিধবা মহিলা তারা সাধারনত সাদা শাড়ি পরে থাকে তারা রঙ্গিন শাড়ি পরে না ।আর শাড়ি পরে সকল মহিলা সুন্দরী দেখতে লাগে ।আর আজ আমরা এমন একটি জিনইস দেখাব এই শাড়ির নিয়ে ,যেখান একটি মেয়ে শাড়ি পরে আছে কিন্তু তার শাড়ি জুম করে যা দেখতে পাওয়া গেল তা দেখলে আপনি চমকে যাবেন ।

মেয়েটি এই শাড়ি পড়ে রাস্তায় বেরল কিন্তু ছবিটি জুম করে যা দেখা গেল জানলে চমকে যাবেনআর এই শাড়ি পরে থাকা মহিলার নবাম বংশিকা ।আর এই শাড়ি কেনার পর মহি;লা মার্কেটে যায় আর সেখানে গিয়ে সেখান কার পাবলিক তার শাড়ি দেখে এমন একটি জিনিস দেখতে পায় যা দেখে তাদের মাথায় হাত পড়ে ।

আর আপনি যদি এটি জুম করে দেখেন তাহলে দেখতে পাবেন একটি আশ্চর্য জিনিস ।আসলে এই শাড়ির মধ্যে নোট বন্দি হয়ে যাওয়া ৫০০ টাকার আর ১০০০ টাকার পুরানো নোট আছে ।আর যখন তাকে এই শাড়ি নিয়ে জিজ্ঞাসা করা হল।তিনি জানান এটা আমার পরিকল্পনা আমি এই বাতিল হয়ে যাওয়া নোট গুলিকে একসাথে ভালো কাজে লাগাতে চায় ।আর আপনারাও দেখন কিভাবে বুদ্ধি দিয়ে নোট বানান হয়েছে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *